মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সিটিজেন চার্টার

১৯৯৫ সালে জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসটি প্রতিষ্ঠা হয়।বাংলাদেশের অর্থনীতিতে বিপুল সংখ্যক প্রবাসী কর্মীর অবদানের গুরুত্ব অনুধাবন করে পরিবর্তিত বৈশ্বিক পেক্ষাপটে বিদেশ গমনেচ্ছু কর্মীদের সহায়ত প্রদান ও বিদেশে কর্মরত প্রবাসী বাংলাদেশী ও দেশে তাদের পরিবার পরিজনকে কল্যাণমূলক সেবা প্রদানে অফিসটি জেলা পর্যায়ে নিরলশভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও পশিক্ষণ ব্যুরো,(বি.এম.ই.টি) ঢাকা হতে জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসে কোন সিটিজেন চার্টার পাওয়া যায়নি। তথাপিও উক্ত অফিসটির কর্মকান্ডকে সুসংগঠিত ভাবে পরিচালনার নিমিত্ত কাজ গুলোকে নিম্ন বর্ণিত ৫ (পাঁচ)টি শাখায় বিভক্ত করে সেবা প্রদান করা হচ্ছে।

১। নিবন্ধন ও পরামর্শ শাখা;

২। কল্যাণ শাখা;

৩। উন্নয়ন, প্রচার ও এনজিও শাখা;

৪। অভিযোগ , তদমত্ম  ও সহায়তাপ্রদান শাখা;

৫। প্রশাসন ও হিসাব শাখা;

১। নিবন্ধন ও পরামর্শ শাখা

একজন বিদেশ গমনেচ্ছু কর্মীকে নিজ জেলার জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসে এসে তার সকল তথ্যসহ নাম রেজিষ্ট্রেশন করতে হবে। নাম নিবন্ধন /রেজিষ্টেশন বাধ্যতামূলক। রেজিষ্ট্রেশন ছাড়া কেউ বিদেশ গমন করতে পারবে না। বিদেশে কর্মী নিয়োগ কার্যক্রমে মধ্যসত্বভোগী বিলোপ ও ডাটা ব্যাংক হতে সরাসরি কর্মী নিয়োগে সুবিধা প্রদান, দালালদের প্রতারণারোধ ও দেশের সকল অঞ্চলের কর্মীদের বিদেশে কর্মসংস্থানের সুযোগ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে এই রেজিষ্ট্রেশন পদ্ধতি চালু করা হয়েছে।

(ক) জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসে রেজিস্ট্রেশন কার্ড প্রদানঃ

- নির্ধারিত আবেদন ফরম পূরণ।

- সোনালী ব্যাংক হতে ১৫০/- (একশত) টাকার পে-অর্ডার/ব্যাংক                   ড্রাফট।

- পৌর মেয়র/চেয়ারম্যান কর্তৃক নাগরিকত্বের সনদপত্র।

- একাডেমিক সার্টিফিকেটের  সত্যায়িত অনুলিপি।

- অভিজ্ঞতার সার্টিফিকেটের সত্যায়িত অনুলিপি। (যদি থাকে)

- প্রশিক্ষণের সার্টিফিকেটের সত্যায়িত অনুলিপি। (যদি থাকে)

- পাসপোর্টের সত্যায়িত অনুলিপি। (যদি থাকে)

- ৪ (চার) কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি।

- ভোটার আইডি কার্ডের সত্যায়িত কপি (যদি থাকে)

                          ও

- অন্যান্য কাগজপত্র পূরণ সাপেক্ষে রেজিষ্ট্রেশন কাড প্রদান করা হয়। 

 ২। কল্যাণ শাখাঃ

* বিদেশে মৃত্যুবরণকারী কর্মীদের লাশ দেশে ফেরত আনা হবে নাকি প্রবাসে তার দাফন-কাফন/সৎকার করা হবে এই সম্পর্কে মতামত সংগ্রহের কাজ করা হয়ে থাকে।

* বিদেশে মৃত্যুবরণকারী কর্মীদের লাশ বিমান বন্দরে এসে পৌছিলে লাশ পরিবহন ও দাফন সংক্রামত্ম বিষয়ে মৃতের অভিভাবক/ওয়ারিশদের ওয়ারিশন সনদপত্র তৈরি ও দাফন খরচ বাবদ ৩৫০০০/- (পঁয়ত্রিশ) হাজার টাকা হযরত শাহ্জালাল বিমান বন্দর, ঢাকা কল্যাণ ডেস্ক হতে গ্রহণে সহায়তা ও পরামর্শ প্রদান করা হয়।

* বিদেশে মৃত্যুবরণকারী কর্মীদের মৃত্যুজনিত ক্ষতিপূরণ/বকেয়া বেতন ও ইন্সুরেন্সের অর্থ প্রাপ্তির জন্য মৃতের ওয়ারিশকর্তৃক আবেদন পত্র সহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো, ঢাকাতে পাঠানো হয়। পরবর্তীতে চাহিদা পত্র ইস্যুর পেক্ষিতে অর্থ মঞ্জুরীর বিষয়ে মৃতের ওয়ারিশ কর্তৃক দাখিলকৃত কাগজপত্রাদি যাচাই বাচাই করে প্রতিবেদন ব্যুরোতে পাঠানো হয় এবং ব্যুরো থেকে চেক পাঠানোর পর উহা প্রাপকের সঠিকতা যাচাই করে বিতরণ করা হয়।

* বিদেশে মৃত্যুবরণকারী কর্মীর জন্য ক্ষতিপূরণের অর্থ পাওয়া না গেলে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ তহবিল হতে জেলা কর্মসংস্থান অফিসের মাধ্যমে  আর্থিক অনুদান প্রদান করা হয়ে থাকে। বর্তমানে ওয়েজ আর্নার্স তহবিল হতে আবেদনের পুরিপেক্ষিতে ২,০০,০০০/-  (দুই লক্ষ) টাকা আর্থিক সাহায্য প্রদান করা হয়ে থাকে।

৩। উন্নয়ন, প্রচার ও এন.জি.ও শাখাঃ

  - জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকার কর্তৃক আরোপিত উন্নয়ন মূলক কর্মসূচী পালন করে থাকে। এ বিষয়ে বিদেশ যাওয়ার পূর্বে কোন কর্মী যাতে প্রতারিত না হয়, তারা যাতে সঠিক উপায়ে বিদেশ যেতে পারে সে বিষয়ে তাদের বিভিন্ন পরামর্শ প্রদান করে থাকে। বিশেষ করে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের মাধ্যমে বিদেশ যাওয়ার প্রাক্কালে ঋণসহায়তার মাধ্যমে উক্ত সেবা প্রদান করা হয়ে থাকে। নিরাপদ অভিবাসনের মাধ্যমে বিদেশে নারী কর্মী গমনের পূর্বেই তাদের করনীয় ও বর্জনীয় বিষয়ে ধারণা দেওয়া হয়ে থাকে। সঠিক রিক্রুটিং এজেন্সীর মাধ্যমে যাওয়া, ভিসার সঠিকতার পরামর্শ দেওয়া, রিফলেট,পোষ্টার এর মাধ্যমে প্রচার প্রচারণা করা ও বিভিন্ন এনজিওদের সাথে মানব পাচার বিষয়ক মিটিং ও কর্মশালা বিষয়ক কর্মকান্ডের সমন্বয় করা হয়ে থাকে।

৪। অভিযোগ , তদমত্ম  ও সহায়তা প্রদান শাখা

নিরাপদ অভিবাসনের ক্ষেত্রে অত্র জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস, চাঁপাইনবাবগঞ্জ যে সমসত্ম দায়িত্ব পালন করে থাকে।

- বিদেশ যাওয়ার ক্ষেত্রে কোন কর্মী প্রতারিত হলে তার প্রতারণার বিষয়ে কোন অভিযোগ করলে তার অভিযোগ গ্রহণ করা হয়ে থাকে।

- প্রতারিত ব্যক্তির অভিযোগ তদমত্ম করে প্রাপ্ত অভিযোগের তদন্ত রিপোর্ট জনশক্তি ব্যুরো, ঢাকাতে অভিযোগ নিষ্পত্তির জন্য প্রেরণ করা হয়ে থাকে।

- অভিযোগকারীর অভিযোগ শুনানী শেষে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে মামলা দায়েরের ক্ষেত্রে তার পক্ষে পূর্ণ সহায়তা প্রদান করা হয়ে থাকে।

- কোন রিক্রুটিং এজেন্সীর বিরুদ্ধে অভিয়োগ করলে তার অভিযোগ গ্রহণ করে জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো, ঢাকাতে অভিযোগটি দায়ের করা হয়ে  থাকে।

৫। প্রশাসন ও হিসাব শাখাঃ

(ক) প্রশাসনিক সংক্রান্ত তথ্যঃ

জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস, চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ও জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ  ব্যুরো ঢাকার নিয়ন্ত্রনাধীন একটি জেলা পর্যায়ের অফিস, এখানে একজন সহকারী পরিচালকের অধীনে ২ (দুই) জন জনশক্তি জরীপ কর্মকর্তা, ১ (এক) জন উচ্চ মান সহকারী-কাম হিসাব রক্ষক  সহ মোট ৪ (চার) জন কর্মকর্তা এবং কর্মচারী সমন্বয়ে সরকারের একটি দপ্তর হিসাবে কার্য্যরত।

শ্রেণীর নাম

মঞ্জুরীকৃত পদ সংখ্যা

পূরণকৃত পদসংখ্যা

শূন্য পদের সংখ্যা্

প্রথম শ্রেনী

১ (এক) টি

১ (এক) টি

নাই

দ্বিতীয় শ্রেনী

-

-

-

তৃতীয় শ্রেনী

৩  (তিন) টি

৩  (তিন) টি

নাই

চতুর্থ শ্রেনী

১ (এক) টি

-

০১

প্রশাসন শাখা হতে কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের প্রশাসনিক বিভিন্ন বিষয়গুলি দেখভাল করা হয়ে থাকে।

(খ) হিসাব সংক্রামত্ম তথ্যঃ

হিসাব সংক্রামত্ম শাখা হতে রাজস্ব বাজেট ও ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ তহবিল হতে কল্যাণের বাজেটের ব্যয় বরাদ্দের সুষ্ঠভাবে নিয়ন্ত্রন করা হয়ে থাকে।


Share with :

Facebook Twitter